শোক দিবসেই কেন খালেদা জিয়ার ভুয়া জন্মদিন?

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৭-৮-২০২১

This image is not found

 ১৫ই আগষ্ট,  বাঙ্গালী জাতির ইতিহাসের বেদনাদায়ক এক দিন। ১৯৭৫ সালের এই দিনে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়। গত দুইদিন আগে জাতির পিতাকে স্মরণ করে সারাদেশে গভীর শ্রদ্ধার সাথে জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়। 

অপরদিকে ১৯৯৬ সাল থেকে ১৫ ই আগষ্ট ঘটা করে নিজের জন্মদিন পালন করে আসছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া। বাঙ্গালীর শোকব্যঞ্জক এই দিনে জাতীয় শোক দিবসকে উপহাস করে জন্মদিন পালনকে খুব নিন্দনীয় কাজ বলে মনে করছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ‘ইকবাল হোসেন টিপু’।  বিভিন্ন তথ্য অনুসন্ধানে দেখা যায় বেগম জিয়ার প্রকৃত জন্ম তারিখ নিয়ে রয়েছে বিভ্রান্তি। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী ভিন্ন ভিন্ন জায়গায় তার জন্মতারিখ এবং সাল ভিন্ন দিয়েছেন। এতে করে বেগম খালেদা জিয়ার প্রকৃত জন্মদিন নিয়ে বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। বিভিন্ন সময়ে তার ভিন্ন ভিন্ন জন্মদিনের কিছু তথ্য দেখে নেই..

--এসএসসি পরিক্ষার মার্কশীটে বিএনপি চেয়ারপার্সন এর জন্ম ৫ সেপ্টেম্বর, ১৯৪৬
-- ২০০১ সালের এমআরপি পাসপোর্টে দেয়া তথ্য অনুযায়ী খালেদা জিয়ার জন্ম ৫ আগষ্ট, ১৯৪৬
-- ১৯৯১ সালে দৈনিক একটি পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়া জীবনীতে তার জন্ম ১৯ আগষ্ট,১৯৪৫
-- সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এর সাথে বিবাহের কাবিননামায় বেগম জিয়ার জন্ম ৪ আগষ্ট, ১৯৪৪
-- এছাড়া গত বছর করোনা টেস্ট রিপোর্টে তার জন্মদিন উল্লেখ করা ছিলো ৮ মে, ১৯৪৬

করোনার রিপোর্টে উল্লেখ থাকা জন্মদিনের বিষয়টি ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ফলে জাতীয় শোক দিবসকে উপহাস করতে গিয়ে বেগম জিয়া এবার নিজেই দেশবাসীর সামনে হাসির পাত্র হয়েছেন ।

এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন টিপু বলেন,

 ‘‘বিএনপি ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা রাজনৈতিক হীনমন্যতা থেকেই ১৫’ই আগষ্ট খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালন করে। অথচ বিভিন্নসময়ে বিভিন্ন জায়গায় তাদের দেওয়া তথ্যপ্রমাণ এবং ডকুমেন্টস বলে সম্পূর্ণ ভিন্ন কথা। একজন মানুষের তো একাধিক জন্মতারিখ হতে পারেনা। ১৫ই আগষ্ট পুরো বাঙ্গালির জন্য শোকের দিন। এই  দিনে জন্মদিন পালনের নামে বিএনপি ও ছাত্রদল যে ঘৃণ্য নাটক সাজায়, বাংলাদেশের মানুষ তা ভালোমতো অনুধাবন করেছে।
উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভুয়া জন্মদিন পালনের নামে বিএনপি ও ছাত্রদলের এ ধরনের কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা জানাই’’


অবশ্য ২০১৯ সাল থেকে ১৫ই আগষ্টের পরিবর্তে ১৬ই আগষ্ট বিএনপি চেয়ারপার্সনের জন্মদিন উদযাপন করে আসছেন বিএনপি সমর্থিত নেতাকর্মীরা। এ নিয়ে অনুসন্ধানে খালেদা জিয়ার ছয়টি ভিন্ন ভিন্ন জন্ম তারিখের সন্ধান মিলে।

এই বিভাগের আরও