ছাত্রনেতা শাকিলের নেতৃত্বগুনে সকল দাবি মেনে নিতে বাধ্য হয়েছে লেদার ইন্সটিটিউট প্রশাসন

নিজস্ব প্রতিবেদক

৭-৬-২০২১

This image is not found

ইন্সটিটিউট অফ লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি ,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শিক্ষার্থীদের উপর আরোপিত  উন্নয়ন ফি এবং রিটেক পরীক্ষায় অতিরিক্ত ২০০০ টাকা সহ ,পূর্বের কোনো নোটিশ ছাড়া ৩য় ও ৪র্থ বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করে । প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তকে ইন্সটিটিউট অফ লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজির
শিক্ষার্থীরা মেনে নিতে পারে নি। এমতাবস্তায় ছাত্রনেতা সাহিদুল ইসলাম শাকিল শিক্ষার্থীদের সাথে একাত্মা ঘোষণা করে সোমবার সকালে আন্দোলনের ডাক দেয় এবং ক্যাম্পাসে অবস্থান করে বিকেল ৩টা ৩০ মিনিটে শতাধিক শিক্ষার্থী নিয়ে ইন্সটিটিউট এর ডিরেক্টর অফিসে গিয়ে তাদের দাবিদাওয়া উত্থাপন করেন। প্রায় দুই ঘন্টা আ আলোচনার পরে ইন্সটিটিউট প্রশাসন তাদের দাবি মেনে নিতে বাধ্য হয় ।দাবী গুলো হলো:
১. ভর্তির ডেট ২০তারিখ পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে 

২. রিটেকের জরিমানা ৫০% মওকুফ করা হয়েছে(২০০০ থেকে ১০০০ দিতে হবে)

৩. উন্নয়ন ফি আগে ৬৫০০ দিতে হতো বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুসারে ৫০% মওকুফ করে এখন ৩২৫০ দিতে হবে।

৪.আমাদের টিএসসি তে কোনো টাকা জমা দিতে হবে না,সকল কাজ আমাদের ইনস্টিটিউটের অফিসেই করা যাবে।

৫.৩য় ও ৪র্থ বর্ষের এক্সাম জুলাই মাসে এবং ১ম ও ২য় বর্ষের এক্সাম আগস্ট মাসে , একই দিনে দুই বর্ষের এক্সাম হবে না। 

৬.শিক্ষার্থীরা যেভাবে চাইবে সেভাবেই রুটিন হবে ..রুটিন করার দায়িত্ব সি আর দের উপর দেওয়া হয়েছে ।

আন্দোলনের বিষয়ে ছাত্রনেতা সাহিদুল ইসলাম শাকিল আমাদের জানায় "আমার নেতা সাদ্দাম হোসেন (সাধারন সম্পাদক ,ঢাবি ছাত্রলীগ ) আমাদের সবসময় বঙ্গবন্ধুর আদর্শ শিক্ষা দিয়েছেন । ভবিষ্যতে তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের যেকোনো যৌক্তিক আন্দোলন সংগ্রামে পাশে থাকবে বলে জানান ।"

এই বিভাগের আরও