গলাচিপায় ছাত্রলীগের উপজেলা কমিটি বিলুপ্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

গলাচিপা(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

১১-২-২০২১

This image is not found

গলাচিপা উপজেলা ছাত্রলীগের সদ্য ঘোষিত কমিটি বিলুপ্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সদ্য বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি শরীফ আহম্মেদ আসিফ। একইসাথে সদ্য ঘোষিত কমিটির বিভিন্ন পদে থাকা ছয়জন এ সংবাদ সম্মেলনে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার বেলা দুইটায় উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন গলাচিপা উপজেলা ছাত্রলীগের সদ্য বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি শরীফ আহম্মেদ আসিফ। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সদ্য বিলুপ্ত কমিটির উপজেলা শাখার সহসভাপতি বাইতুল ইসলাম রক্সি, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান ইমনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে শরীফ আহম্মেদ আসিফ বলেন, গত ১০ ফেব্রুয়ারি রাত ৩টায় জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত বিভিন্ন পদে ২২ সদস্যের কমিটির নাম ঘোষণা করা হয়। রাতের আঁধারে সদ্য ঘোষিত এ কমিটি বাতিল করে ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী পূর্বের কমিটি দিয়ে সম্মেলনের মাধ্যমে   সকলের  মতামতের ভিত্তিতে কমিটি ঘোষণার আহবান জানাই।
এ সময় তিনি আরো বলেন, জেলা ছাত্রলীগ অর্থের বিনিময়ে গঠনতন্ত্র অনুসরণ না করে কোন প্রার্থীর কাছে জীবন বৃত্তান্ত চাওয়া হয়নি। ঘোষিত এ কমিটির সভাপতি কামরুল ইসলাম সোহেল ও সাধারণ সম্পাদক রনি খানের উভয় পরিবারই বিএনপি জামায়েতের রাজনীতির সাথে জড়িত এবং তাদের পরিবার বিভিন্ন পদপদবীতে বহাল আছেন। এ তথ্য গোপন রাখা হয়েছে। তাই সাধারণ নেতা-কর্মীদের দাবি, সদ্য ঘোষিত কমিটি বাতিল করে নতুন কমিটি গঠন করা হোক। 

এদিকে  এ সংবাদ সম্মেলনে সদ্য ঘোষিত কমিটির বিভিন্ন পদে থাকা ছয়জন পদত্যাগের ঘোষণা দেন। এরা হলেন, সাংগঠনিক শাকিল মাহমুদ সুজন, শুভংকর  মন্ডল ও রাব্বি তালুকদার। শরীফ আহম্মেদ আসিফ সংবাদ সম্মেলন শেষে এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, সদ্যঘোষিত অগঠনতান্ত্রিক ও অবৈধ কমিটি বিলুপ্তির দাবি নিয়ে বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সিনিয়র নেতৃবৃন্দের কাছে গেলে একপর্যায়ে আমার ও আমার সঙ্গে থাকা কর্মীদের ওপর সোহেল ও রনির নেতৃত্বে হামলা করা হয়। এসময় অফিসের চেয়ার ও জাতির জনকের ছবিও ভাঙচুরকরা  হয়। উল্টো ঘটনটি আমাদের ওপর চাপিয়ে অপ প্রচার করে।

এই বিভাগের আরও