আবারো মহানবীর ব্যাঙ্গচিত্র

আফরোজা, বিশেষ প্রতিনিধি

৩-৯-২০২০

This image is not found

 

ফান্সের ব্যাঙ্গাত্বক পত্রিকা শার্লি এবদো'র কার্যালয়ে হামলা ও হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে ১৪ জন বিচারের  মুখোমুখি। এর আগে পত্রিকাটি আবারো মহানবীকে নিয়ে ছাপালো ব্যাঙ্গাত্বক কার্টুন। গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে কোন কিছু বলার নেই এমন মন্তব্য করেছেন ফরাসি প্রসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরন।

২০১৫ সালে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)-কে নিয়ে ব্যঙ্গাত্বক কার্টুন ছাপিয়ে বিতর্কের জন্ম দেয় ফরাসি পত্রিকা শার্লি এবদো। ঐ ঘটনা নিয়ে আলোচনা সমালোচনার মধ্যেই হামলার স্বীকার হয় পত্রিকাটির কার্যালয়। মুসলিম দুই ভাইয়ের গুলিতে প্রাণ হারায় ১৭ জন সংবাদকর্মী, কার্টুনিস্ট ও নিরাপত্তাকর্মী। পুলিশের পাল্টা গুলিতে প্রাণ যায় হামলাকারীদেরও।

সে ঘটনার পাঁচ বছর পর হামলাকারীদের সহযোগিতার  দায়ে বিচারের মুখোমুখি ১৪ জন কিন্তু তার আগ মুহূর্তে পুরোনো সেসব কার্টুন ছাপিয়ে আবারো বিতর্কের জন্ম দিল শার্লি এবদো।

গণতান্ত্রিক কাঠামোতে স্বাধীন মত প্রকাশকে সম্মান জানানো উচিত। ক্ষতিগ্রস্তদের সত্য জানানো ও ক্ষতিপূরণের দায়িত্ব আদালতের, শুধু এটাই নয় বিচারের মাধ্যমে কেন শার্লি এবদো'য় হামলার লক্ষবস্তু হল বিষয়টি স্পষ্ট হবে বলে জানান ফ্রান্সের অপরাধ বিষয়ক আইনজীবী, ফ্রাসোয়ী মঁলি।

যে কার্টুন ছাপানো নিয়ে এতো রক্তপাত আবারো সেগুলো প্রকাশে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে। তবে ফরাসি প্রসিডেন্ট বলছেন গণমাধ্যমের স্বাধীনতার কথা। তিনি বলেন সংবাদকর্মীদের কাজ বা সম্পাদকীয় পছন্দ-অপছন্দ নিয়ে মন্তব্য করার সুযোগ নেই ফ্রান্সের।কারণ এটা সরাসরি মুক্তবাদ চর্চার উপর হস্তক্ষেপ। যারা নিজেদের স্বাধীন মতামতের জন্য প্রাণ দিল, তাদের পরিবারকে উপযুক্ত বিচার পাইয়ে দেয়াও প্রশাসনের দায়িত্ব। 

গত মার্চে শুরু হওয়ার কথা ছিল শার্লি এবদো'র হামলার বিচার কাজ কিন্তু করোনা মহামারির কারণে তা পিছিয়ে যায় পাঁচ মাস৷  অভিযুক্ত ১৪ জনের মধ্যে তিন জন বর্তমানে পলাতক।

এই বিভাগের আরও