ভ্রমন পিপাসুদের সাথে বেড়ে উঠছে ভ্রমণ চিত্রশিল্পী || কাওসার আহমেদ || Kawsar Dxo ||

সাজ্জাদ হোসেন

২৯-৮-২০২০

This image is not found

বাংলাদেশ  হলো সবুজ আর জলের রাজ্য। জল আর জঙ্গলের কাব্য এখানে লেখা হয় প্রতিনিয়ত। প্রতিনিয়তই বেড়ে চলছে দেশের পর্যটন  শিল্প। ছোট থেকে বড় কিছুটা সময় হাতে পেলেই চলে যাচ্ছেন ঘুরতে। দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে।কেউবা পাড়ি জমাচ্ছেন দেশের বাইরে। পূর্বে ঘুরাঘুরি ছিলো পার্ক বা বানিজ্যিক স্থান কেন্দ্রিক। তবে গত ৪/৫ বছরে সে চিত্র পাল্টে গিয়েছে।মানুষ এখন ছুটছে পাহাড়ের কাছে,  ঝর্ণার কাছে।

মানুষ হয়ে উঠছে ভ্রমণ পিপাসু। আর যারা কাছে যেয়ে দেখতে পারছে না?তাদের কি?তারা দেখছেন বিভিন্ন ভ্রমন সংক্রান্ত ভিডিও।যেগুলো এখন VLOG বা CINEMATIC TRAVEL VIDEO নামে পরিচিত হচ্ছে।যার মাধ্যমে দেশের দর্শনীয় স্থানগুলো ফুটে উঠেছে দেশ ও বিদেশের লক্ষাধিক ভ্রমন পিপাসু দের নিকট। ফলে পর্যটন শিল্পে এক বৃহৎ সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচিত হয়েছে।

ঠিক এমনই  একজন ভ্রমন পিপাসু এবং ভ্রমন চিত্রশিল্পী কাওসার আহমেদ ( kawsar ahmed) যিনি Kawsar Dxo নামেও সমধিক পরিচত।আমরা তার নিকট থেকেই  জানত চেয়েছি ভ্রমন পিপাসু ও ভ্রমন শিল্পীদের সম্পর্কে।
 তার পেইজ : https://www.facebook.com/theteamvideo

কাওসার আহমেদ : 

​​​​​​বিগত ৪/৫ বছর ধরে ভ্রমন বিষয়টি দেশে অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।সামান্য  ছুটি হলেই ছুটে চলা হচ্ছে দেশের এ প্রান্ত থেকে সে প্রান্ত।কখনো তা হচ্ছে বন্ধুবান্ধবের সাথে কখনো  আবার  একাকী ।আর বর্তমানে হাতে মোটামুটি  মানের একটি স্মার্টফোন  হলেই ভালো মানের ছবি/ভিডিও তৈরি করা সম্ভব হচ্ছে।ফলে দিনদিন আরও পরিচিত হচ্ছে অজানা দর্শনীয় স্থান গুলো।আজ হয়তো সোশাল মিডিয়ায় কোনো ছবি/ভিডিও দেখা হলো  যেখানে যাওয়া হয় নি কখনো,অথচ সেই সুন্দর স্থানটি খুবই কাছে,হয়ত পরের ছুটিতে চলে যাওয়া হচ্ছে সেখানে।অপরিচিত অনেক স্থানই এভাবে মানুষের কাছে পরিচিত হচ্ছে এসকল ভ্রমন ভিডিও বা ছবি দিয়ে।মানুষের মাঝে এখন কৃত্রিম সৌন্দর্যের চেয়ে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের প্রতি টান বাড়ছে।যা আমাদের দেশের পর্যটন শিল্পকে যেমন বৃদ্ধি করছে তেমনি বহির্বিশ্বে  আমাদের দেশকে তুলে ধরা হচ্ছে।এমনই অনেক ভিডিও,ছবি দেশ এবং দেশের বাহিরে ভ্রমন বিষয়ক প্রতিযোগিতায় স্থান করে নিচ্ছে।সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে লাখো মানুষের কাছে দেশের সৌন্দর্য তুলে ধরছে অনেক চিত্রশিল্পী।দেশীয় অনেক ব্র্যান্ড গুলোও সেরকম প্ল্যাটফর্ম তৈরি করে দিচ্ছে। 

তার ইউটিউব চ্যানেল : https://youtube.com/kawsardxo

তবে একথা বলতেই হয় যে মানুষের আগমন বৃদ্ধির ফলে একদিকে আমরা কিছু ক্ষতিও করে বসছি নিজের অজান্তেই।যেখানে সেখানে ময়লা আবর্জনা ফেলে এসব মূল্যবান স্থান গুলোকে আমরা নষ্ট করে দিচ্ছি।আমাদের এসকল বিষয়ে আরও সতর্ক হতে হবে যাতে এসব স্থানের কোনো ক্ষতি না করি। আর দেশের পর্যটন শিল্পকে এগিয়ে নিতে সরকারকে আরো এগিয়ে আসতে হবে।যাদের অক্লান্ত পরিশ্রম দেশকে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরছে তাদেরকে সুযোগ করে দিতে হবে। আর এভাবেই বিশ্ব দরবারে একদিন পর্যটন শিল্পের শীর্ষ মুকুট লাভ করবে সোনার বাংলাদেশ।

 

এই বিভাগের আরও