বাংলাদেশের প্রথম নারী আলোকচিত্রী সাইদা খানম আর নেই

১৮-৮-২০২০

This image is not found
পল্লী মজুমদার,  নিজস্ব প্রতিবেদক :

বাংলাদেশের প্রথম  নারী আলোকচিত্রী  সাইদা খানম আর নেই।  গত সোমবার  (১৭ আগস্ট ২০২০) রাত ৩ টায় তিনি মৃত্যু বরন করেন। তিনি বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন জটিলতায় ভুগছিলেন।  মৃত্যুকালে  তার বয়স হয়েছিল  ৮৩ বছর। 

সাইদা খানম  ১৯৩৭  সালের ২৯ ডিসেম্বর  পাবনা জেলায় জন্ম গ্রহণ  করেন।  দুই ভাই ও চার বোনে মাঝে সর্বকনিষ্ঠ তিনি।  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা সাহিত্য ও লাইব্রেরি সায়েন্সে মাস্টার্স  করেন তিনি। 
আলোকচিত্রে তার আগ্রহ শুরু হয় বড় বোনের কাছ থেকে প্রথম  ক্যামেরা  উপহার পাওয়ার পর। আলোকচিত্রে তিনি কোন প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন নি।  তিনি বিদেশি ম্যাগাজিনে প্রকাশিত ছবি দেখে দেখে শেখার চেষ্টা করতেন। 

১৯৫৬ সালে সাইদা খানম বেগম পত্রিকার মাধ্যমে আলোকচিত্র সাংবাদিক হিসেবে কাজ শুরু করেন। পরবর্তীতে তার ছবি ইত্তেফাক,  অবজারভার  সহ বিভিন্ন পত্রিকায় ছাপা হয়। তিনি আলোকচিত্রী হিসেবে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক নানা সেমিনারে অংশগ্রহণ করেন। এছাড়াও তিনি সত্যজিৎ রায়ের সাথে তিনটি চলচ্চিত্রে আলোকচিত্রীর কাজ করেন।  সত্যজিৎ রায় ছাড়াও  তিনি রানী  এলিজাবেথ,  নিল আর্মস্ট্রং , বাজ অলড্রীন, মাদার তেরেসা, ইন্দিরা গান্ধী  ও ববঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পোট্রের্ট ছবি তুলেছেন।   
 দেশের বাইরে  ভারত,  জাপান , ফ্রান্স, সুইডেন,  পাকিস্তান, সাইপ্রাস  ও যুক্তরাষ্ট্রে তার তোলা  ছবির বেশকিছু প্রদর্শনী হয়।   ১৯৬০ সালে তিনি 'সারা পাকিস্তান ফটো কন্টেস্ট' পুরষ্কার জিতে নেন।  আলোকচিত্রের জন্য তিনি ইউনেস্কো এওয়ার্ড  পান৷ এছাড়াও  অনন্যা শীর্ষ  দশ পুরষ্কার,  বাংলাদেশ ফটোগ্রাফিক  সোসাইটির সম্মান সুচক ফেলোসহ বিভিন্ন স্বীকৃতি পান তিনি।  

মুক্তিযুদ্ধের সময়  তিনি হলি ফ্যামিলি হসপিটালে সেচ্ছাসেবী নার্স হিসেবে কাজ করেছেন।  তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের  সেমিনার লাইব্রেরিতে গ্রন্থাগারিক হিসেবে কাজ করেন।  

ছবি তোলার পাশাপাশি  তিনি  লেখালেখি  করতেন।  তার উল্লেখযোগ্য  বইয়ের মধ্যে রয়েছে  ' ধুলোমাটি  '  ' স্মৃতির পথ বেয়ে'  ' আমার চোখে সত্যজিৎ  রায় '।  তিনি বাংলা একাডেমির  আজীবন  সদস্য ছিলেন  বলে জানা যায়।

এই বিভাগের আরও