আশরাফুল : নিভে যাওয়া তারার গল্প

১৭-৭-২০২০

This image is not found
মোহাম্মদ ফয়সাল,শিক্ষার্থী ,চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ঃ


২০০৫ সালের ১৮ জুন, ইংল্যান্ডের কার্ডিফ সোফিয়া গার্ডেনে ন্যাটওয়েষ্ট ত্রিদেশীয় সিরিজে ক্রিকেটে সদ্য জন্ম নেওয়া বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া। রিকি পন্টিংয়ের নেতৃত্বে হেইডেন, গিলক্রিস্ট, ম্যাকগ্রা, ব্রেটলি আর গিলেস্পিদের নিয়ে গড়া দল ইতিহাসে অন্যতম সফল দল। একঝাঁক মেধাবী ব্যাটিং লাইন আপ নিয়েও ২৫০ রানের বেশি করতে পারে নি অস্ট্রেলিয়া। বাংলাদেশের শুরুটা মোটেই ভালো ছিল না।তবে অধিনায়ক হাবিবুল বাশারের সাথে ১৩০ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের মালা উপহার দেয় মোহাম্মদ আশরাফুল। ব্যাটকে কলমে পরিনত করে রচনা করে মহাকাব্য। ১০১ বলে ১০০ রান করে নিজে বনে যায় মহাকাব্যের মহানায়ক। এই ম্যাচটি ছিল বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে স্মরনীয় ম্যাচ। 

তবে আশরাফুলের শ্রেষ্ঠত্বের জানান দিয়েছিল এর ও আগে ২০০১ সালে।শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচটা ছিলো বাংলাদেশের ৫ম টেষ্ট ম্যাচ। কলম্বোর স্পোর্টস ক্লাব গ্রাউন্ডে ক্যারিয়ারের প্রথম টেষ্ট খেলতে নেমেছিল আশরাফুল। মুরালিধরন, চামিন্দা ভাসদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে সামনে দুর্গ গড়েছিলেন ১৭ বছর বয়সী এই কিশোর। ৪০ বছরের রেকর্ড ভেঙে সবচেয়ে কম বয়সে শতরান করে ইতিহাস রচনা করেছিলেন। 

২০০৪ সালের ভারতের বিপক্ষে ১৫৮ রানের ইনিংস খেলে তাক লাগিয়ে দিয়েছিল ক্রিকেট বিশ্বকে। ভারতের অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি এই ইনিংস কে তার দেখা অন্যতম সেরা ইনিংস বলে অভিহিত করেছেন।২০০৭ সালের বিশ্বকাপে তৎকালিন এক নাম্বারে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৮৩ বলে ৮৭ রান করে হারিয়ে নিজের অবস্থানের জানান দেয় আরেকবার। টেষ্ট ক্রিকেটে অপরাজিত ১৮৯ রানের দেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ইনিংস সেই খেলেছিল। 

একসময় বাংলাদেশ ক্রিকেটের একমাত্র বিজ্ঞাপন মোহাম্মদ আশরাফুল। বাংলাদেশ ক্রিকেটের অনেক জয়ের মহানায়ক তিনি। দেশের সবচেয়ে প্রতিভাধর ক্রিকেটারের স্বীকৃতিও মিলেছিল তাঁর। হয়েছিলেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ইতিহাসের ২য় কনিষ্ঠতম অধিনায়ক। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে পেয়েছিলেন এশিয়া সেরা একাদশে নির্বাচিত হওয়ার সম্মান। ২০০৭ সালের গ্রামীণফোন প্রথম আলোর বর্ষসেরা খেলোয়াড় হয়েছিলেন তিনি। 

২০১৩ সালে বিপিএলে স্পট ফিক্সিং কেলেংকারীতে জড়িয়ে পড়ে।বিসিবির দুর্নীতি দমন কমিশন তাকে ১০ লক্ষ টাকা জরিমানা ও ৫ বছরের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। 

বাংলাদেশ ক্রিকেটের আশার আলো মোহাম্মদ আশরাফুল নিভে যায় আস্তে আস্তে। একসময়ের সবচাইতে জনপ্রিয় ক্রিকেট ব্যক্তিত্ব শুন্যে মিলিয়ে যায়। ২২ গজের  মহানায়ক রুপকথার মত এসে সকল বাংলাদেশি ক্রিকেট প্রেমিদের হৃদয়ে প্রবেশ করেছিল।দমকা হাওয়া এসে উড়িয়ে নিয়ে গেল। 

 

 

 

সম্পাদনায় : সাজ্জাদ হোসেন

 

এই বিভাগের আরও